শিক্ষা ব্যবস্থার চলমান অচলাবস্থা নিরসন ও সুরক্ষা নিশ্চিত পূর্বক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার দাবিতে আজ (০৮ ফেব্রুয়ারি’২১) সোমবার দুপুর ১:০০ টায় জাতীয় প্রেসক্লাব চত্ত্বরে ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন-এর উদ্যোগে কেন্দ্রীয় সভাপতি নূরুল করীম আকরাম এর সভাপতিত্বে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে কেন্দ্রীয় সভাপতি দ্রুততম সময়ের মধ্যে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার দাবি জানিয়ে বলেন করোনার কারণে ২০২০ সালের ১৭ মার্চ থেকে দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। এ পর্যন্ত পালাক্রমে ১১ বার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের নোটিশ দিয়েছে সরকার। কিন্তু সুনির্দিষ্ট কোন কারণ ছাড়াই সরকারের এমন সিদ্ধান্ত চরম হটকারিতার শামিল। করোনা পরিস্থিতির মধ্যেও হাট-বাজার শপিংমল সহ অধিক লোক সমাগমের সকল স্থানই উন্মুক্ত করে দিয়েছে সরকার। এতদসত্ত্বেও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখা শিক্ষাব্যবস্থা ও শিক্ষার্থীদের মেধা ধ্বংসের পথকেই সুগম করছে।

তিনি বলেন, দীর্ঘদিন স্কুল-কলেজ বন্ধ থাকায় শিক্ষার্থীদের ওপর বিরূপ প্রভাব পড়ছে। অনেকেই অনৈতিক কার্যকলাপে জড়িত হয়ে যাচ্ছে, কেউ কেউ অবসাদগ্রস্থ হয়ে নেশা করছে, আত্মহত্যার পথ বেছে নিচ্ছে। বিভিন্ন এলাকায় উঠতি বয়সী শিক্ষার্থীদের মাধ্যমে কিশোর গ্যাং গড়ে উঠছে। যা অভিভাবকসহ সমাজ ও রাষ্ট্রের জন্য সীমাহীন উদ্বেগের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

কেন্দ্রীয় সভাপতি আরো বলেন, অনলাইনে পাঠদানে শিক্ষার্থীদের মনোযোগ থাকে না। পাহাড়ি ও পিছিয়ে পড়া এলাকার শিক্ষার্থীদের জন্য ডিভাইস বা নেটওয়ার্ক সমস্যার কারণে অনলাইনে কাঙ্খিতভাবে শিক্ষা অর্জন দুরূহ হয়ে পড়েছে। অন্যদিকে এই সমস্যা নিরসনে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও ইউজিসির ভিন্ন ভিন্ন বক্তব্য শিক্ষার্থীদের সাথে একধরনের পরিহাসেরই নামান্তর। তাই কালবিলম্ব না করে দ্রুততম সময়ে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার জোর দাবি জানান তিনি।

সেক্রেটারি জেনারেল শেখ মুহাম্মাদ আল-আমিন এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে আরো বক্তব্য রাখেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি শরিফুল ইসলাম রিয়াদ, সাংগঠনিক সম্পাদক এম এম শোয়াইব, প্রশিক্ষণ সম্পাদক ইউসুফ আহমাদ মানসুর, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক কেএম শরীয়াতুল্লাহ, দাওয়াহ ও অফিস সম্পাদক এইচ এম সাখাওয়াত উল্লাহ, প্রকাশনা সম্পাদক মুহাম্মাদ ইবরাহীম হুসাইন, প্রচার ও আন্তর্জাতিক সম্পাদক নূরুল বশর আজিজী, পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় সম্পাদক এম.এ হাসিব গোলদার, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় সম্পাদক শেখ ইহতেশাম বিল্লাহ আজিজী, কওমি মাদরাসা সম্পাদক মুহাম্মাদ সিরাজুল ইসলাম, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সভাপতি মাহমুদুল হাসান ও ঢাকা মহানগর নেতৃবৃন্দ।